বালৃুরপাড় রিয়েল এস্টেট (ব্লগ)

জমি সংক্রান্ত আইন ও সমস্যর সমাধান এখানেই

নোটারী বিধিমালা, ১৯৬৪

নোটারী বিধিমালা, ১৯৬৪

১। সংক্ষিপ্ত শিরোনাম এবং বলবৎকরণ

(১) অএ নিয়মাবলী বাংলাদেশ নোটারী বিধিমালা, ১৯৬৪ বলে অভিহিত হবে।

(২) উহা অবিলন্বে কার্যকরী হবে।

বিধি ২। সংঞ্জা

প্রসঙ্গে অন্য প্রকার প্রয়োজন না হলে অএ বিধিমালাতে নিম্নোক্ত শদ্ধাবলীর উপর এতদ্বারা যথাক্রমে ‍আরোপিত র্র্থ হইবে, যথা——–

(ক) ফরম বলতে অএ নিয়ামাবলীর সহিত সংযুক্ত ফরমকে বুঝায়

(খ) সরকার বলতে বাংলাদেশের সরকারকে বুঝায়

(গ) অধ্যাদেশ বলতে ১৯৬১ সালের নোটারী অধ্যাদেশকে (১৯৬১ সালের ১৯ নং অধ্যাদেশ) কে বুঝায়


(ঘ) ”ধারা” বলতে বলতে অধ্যাদেশের যথাক্রমে ‍ধারাকে বুঝায়

বিধি ৩। নোটারী হিসাবে নিযুক্তির জন্য যোগ্যতা

৩। নোটারী হিসাবে নিযুক্তির জন্য আবেদন করার তারিখে কোর ব্যাক্তি—

(ক) ইংল্যান্ড অনুষদ কর্তৃপক্ষ নিযুক্ত নোটারী পাবলিক না হলে অথবা

(খ) তিনি ১৮৮১ সালের হস্তান্তরযোগ্য দলিল আইনের (১৮৮১সালের ২৬ নং আইন এর অধীনে নিযুক্ত একজন নোটারী হন। অথবা

(গ) কমপক্ষে ৭(সাত) বৎসর যাবত তিনি আইনজীবি বিসাবে অইন পেশায় নিয়োজিত আছেণ , অথবা ৫(পাচ) বৎসর যাবৎ তিনি সংবিধানের ১৫২ অনুচ্ছেদে প্রদত্ত সংঞ্জানুযায়ী বিচার বিভাগীয় কর্মবিভাগের সদস্য ছিলেন, অথবা তিনি সরকারি কর্মচারী হিসাবে আইন খসরা ও আইন প্রণয়ণ প্রক্রিয়ায় কমপক্ষে ৫ (পাচ) বৎসরের । অভিঞ্জ হইয়া থাকেন।

Please follow and like us:

Leave a Reply

Your email address will not be published.