বালৃুরপাড় রিয়েল এস্টেট (ব্লগ)

জমি সংক্রান্ত আইন ও সমস্যর সমাধান এখানেই

সন্তানের ভরণপোষণ

সন্তানের ভরণপোষণ

মুসলিম আইন ও রাষ্ট্রীয় আইন অনুসারে পিতাই সন্তানের প্রকৃত অভিভাবক। তাই সন্তানের ভরণপোষণের সব দায়-দায়িত্ব হচ্ছে বাবার। সন্তানের ভরণপোষণ সংক্রান্ত বিধানগুলো নিম্নরূপ।
১। সাবালক প্রাপ্ত না হওয়া পর্যন্ত পিতা তার ছেলে-মেয়েদের ভরণপোষণ দিতে বাধ্য।

২। তালাক বা বিচ্ছেদের পর সন্তান যদি মায়ের কাছে থাকে, তবুও বাবাই ভরণপোষণ দিতে বাধ্য। সে ক্ষেত্রে ছেলে ৭ বছর এবং মেয়ের বিয়ে হওয়া পর্যন্ত। উল্লেখ্য, মেয়ের বিয়ের খরচও বাবাকেই দিতে হবে। ৩।যদি কোনো সাবালক সন্তান অসুস্থতার জন্য কিংবা পঙ্গুত্বের জন্য রোজগার করতে না পারে, তবে বাবা তাকে আজীবন ভরণপোষণ দিতে বাধ্য।

৪। পিতা-মাতা গরিব বা দৈহিকভাবে অসমর্থ হলে দাদার অবস্থা সচ্ছল হলে ওই সব ছেলেমেয়ের ভরণপোষণের দায়িত্ব দাদার ওপর ন্যস্ত হবে।

৫। সন্তানদের অভিভাবক বাবা, মা সন্তানের জিম্মাদার ও হেফাজতকারী হিসেবে ভূমিকা পালন করবে।

৬। মা সন্তানের লালন-পালনকারী। মায়ের দায়িত্ব সন্তানদের দেখাশোনা করা। সন্তানরা মায়ের কাছে থাকবে এবং বাবা সব খরচ বহন করবে।

৭। মুসলিম আইনে বাবা তার দায়িত্ব পালন না করলে অভিভাবকত্বের দাবি করতে পারবে না। এ ক্ষেত্রে নির্দিষ্ট সময় পার হওয়ার পরও সন্তানরা মায়ের কাছে থাকতে পারবে।

কখনো কখনো মা সন্তানের জিম্মাদার থাকতে পারবে না।

(১) মা অসৎ জীবনযাপন করলে।

(২) মা এমন কাউকে বিয়ে করলে যার সঙ্গে তার নিজের কন্যার বিয়ে হওয়ার ব্যাপারে ধর্মীয় নিষেধ নেই।

(৩) সন্তানের প্রতি উদাসীন, দায়িত্ব পালনে অপারগ হলে।


Please follow and like us:

Leave a Reply

Your email address will not be published.