বালৃুরপাড় রিয়েল এস্টেট (ব্লগ)

জমি সংক্রান্ত আইন ও সমস্যর সমাধান এখানেই

সম্পত্তি হস্তান্তর আইন, ১৮৮২ এর কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ ধারা

সম্পত্তি হস্তান্তর আইন, ১৮৮২ এর কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ ধারা

31 July, 2018

ধারা-৫৩খ। বায়নাপত্র বা বিক্রয়চুক্তি (contract for sale) বলবৎ থাকাকালে, বায়নাপত্রের অধীন কোন স্থাবর সম্পত্তি, উক্ত চুক্তি আইনানুগভাবে বাতিল না করে, বায়নাপত্র গ্রহীতা ব্যতীত, অন্য কোন পক্ষের নিকট হস্তান্তর করা যাবে না, অন্য কোন ভাবে হস্তান্তর করা হলে তা অবৈধ হবে।

ধারা-৫৩গ। কোন ব্যক্তি উত্তরাধিকার ব্যতীত অন্যভাবে সম্পত্তির মালিক হইয়া থাকিলে, রাষ্ট্রীয় অধিগ্রহণ ও প্রজাস্বত্ব আইন, ১৯৫০ এর অধীন তাহার নিজ নামে সর্বশেষ খতিয়ান না থাকিলে, অথবা উত্তরাধিকার সূত্রে সম্পত্তির মালিক হইয়া থাকিলে, তাহার নিজ নামে বা পূর্ববর্তী নামে সর্বশেষ খতিয়ান প্রস্তুত করা না থাকিলে, কোন স্থাবর সম্পত্তি বিক্রয় করিতে পারিবে না, যদি অন্য কোন ভাবে বিক্রয় হয়, তবে তা অবৈধ হবে।

ধারা-৫৩ঘ। বন্ধক-গ্রহীতার লিখিত সম্মতি ব্যতীত কোন নিবন্ধিত বন্ধকী স্থাবর সম্পত্তি পুনঃবন্ধক বা বিক্রয় করা যাইবে না, এতৎসত্ত্বেও কোন পুনঃবন্ধক বা বিক্রয় করা হইলে তা অবৈধ হইবে।

ধারা-৫৪ক। এই আইনে অথবা আপাতত বলবৎ অন্য কোন আইনে ভিন্নতর যাহাই কিছু থাকুক না কেন, হস্তান্তর গ্রহীতা সম্পত্তিতে বা উহার কোন অংশে দখল গ্রহন করুক বা না করুক, কোন স্থাবর সম্পত্তির বায়নাপত্র বা বিক্রয় চুক্তি কেবল লিখিত এবং রেজিস্ট্রেশন আইন ১৯০৮, এর অধীন দলিলের মাধ্যমে রেজিস্ট্রিকৃত হইতে হইবে।

কোন স্থাবর সম্পত্তির বায়নাপত্রে, বিক্রয় দলিল সম্পাদন ও রেজিস্ট্রেশন বিষয়ে, একটি সময় উল্লেখ করিতে হইবে, যা বায়নাপত্র রেজিস্ট্রেশন এর তারিখ থেকে কার্যকর, তবে যদি কোন সময়সীমা উল্লেখ করা না হয়,তাহলে সময়সীমা ৬ (ছয়) মাস বলিয়া গন্য হইবে।

ধারা- ৮৫। দাবিবিহীন দলিলপত্র বিনষ্টকরণঃ- উইল ব্যতীত, অন্য কোন দলিল ২ (দুই) বৎসরের অধিক সময়ের জন্য কোন রেজিস্ট্রি অফিসে দাবিবিহীন অবস্থায় থাকিলে তাহা বিনষ্ট করা যাইবে।

ধারা- ৮০। এই আইন অনুযায়ী দলিল রেজিস্ট্রিকরনের সমস্ত ফিস দলিলটি উপস্থাপনের সময় দিতে হবে।

ধারা৫২এঃ [কোন স্হাবর সম্পত্তির বিক্রয় দলিল দাখিল করা হলে, যে পর্যন্ত নিম্নবর্ণিত বিবরনাদি দলিলে অন্তর্ভূত এবং দলিলের সহিত সংযুক্ত না করা হয়, সেই পর্যন্ত নিবন্ধনকারী কর্মকর্তা দলিলটি নিবন্ধন করবেন না, যথা-

১। বিক্রেতা যদি উত্তরাধিকারপ্রাপ্তি  ব্যতিত অন্যভাবে সম্পত্তির মালিক হইয়া থাকেন, তাহলে “রাষ্ট্রীয় অধিগ্রহণ ও প্রজাস্বত্ব আইন,১৯৫০” এর অধীন তার নামে প্রস্তুতকৃত সর্বশেষ খতিয়ান;

২। বিক্রেতা যদি উত্তরাধিকার প্রাপ্তিতে সম্পত্তির মালিক হয়ে থাকেন, তাহলে রাষ্ট্রীয় অধিগ্রহণ ও প্রজাস্বত্ব আইন, ১৯৫০ এর অধিন তার নামে অথবা তার পূর্বসূরির নামে প্রস্তুতকৃত সর্বশেষ খতিয়ান;

৩।সম্পত্তির প্রকৃতি

৪। সম্পত্তির মূল্য;

৫।সীমানা ও চৌহদ্দিসহ সম্পত্তির একটি নকশা;

৬। সম্পত্তির মালিকানার গত ২৫ (পঁচিশ) বৎসরের সংক্ষিপ্ত বর্ণনা; এবং

৭। এই দলিল সম্পাদনের পূর্বে সম্পাদনকারী সম্পত্তিটি কোন ব্যক্তির নিকট হস্তান্তর করেন নাই এবং উহাতে তাহার বৈধ স্বত্ব বহাল আছে মর্মে দৃঢ়ভাবে ঘোষনা করিয়া একটি হলফনামা।]

ধারা৪৯। নিবন্ধনযোগ্য দলিল নিবন্ধন না হওয়ার ফলঃ-
এই আইনের অধীন বা দলিল নিবন্ধনের বিধান-সংবলিত বা সম্পর্কিত পূর্ববর্তী কোন আইনের অধীন কোন দলিলের নিবন্ধন প্রয়োজন হইলে, যদি উহা নিবন্ধিত না হয়, তাহা হইলে-
(ক) উক্ত দলিল স্থাবর সম্পত্তিতে কায়েমি বা সম্ভাব্য কোন অধিকার, স্বত্ব বা স্বার্থ বর্তমানে বা ভবিষ্যতে সৃজন, ঘোষণা, অর্পণ বা সীমিত করিতে বা অবসান ঘটাইতে কার্যকর হইবেনা; বা
(খ) উক্ত দলিল দত্তকগ্রহনের কোন ক্ষমতা অর্পণ করিবেনা ।

১০৭- ধারাঃ

সম্পতি হস্তান্তর আইনের ১০৭ ধারায় ইজারা সম্পাদনের পদ্ধতি সম্পর্কে আলোচনা করা হয়েছে, বলা হয়েছে যে, এক বৎসর অপেক্ষা দীর্ঘতর মেয়াদের কিংবা বাৎসরিক খাজনা ধার্যের ভিত্তিতে স্থাবর সম্পত্তির কোন ইজারা অবশ্যই নিবন্ধিত দলিলের মাধ্যমে লিখিতভাবে সম্পন্ন করতে হবে। শুধু মাত্র মৌখিকভাবে কোন ইজারা সম্পন্ন করা যাবে না। ইজারা নিবন্ধিত না হলে বাতিলযোগ্য বলে পরিগনিত হতে পারে।

১১৮ –ধারাঃ

সম্পত্তি হস্তান্তর আইনের ১১৮ ধারায় বিনিময়ের মাধ্যমে সম্পত্তি হস্তান্তর সম্পর্কে বলা হয়েছে। এই ধারার বিধান মতে, একশত টাকার অধিক মূল্যের স্থাবর সম্পত্তি লিখিতভাবে নিবন্ধিত দলিল ব্যতীত বিনিময়ের মাধ্যমে হস্তান্তর করা যাবে না।

১৩০- ধারাঃ

সম্পত্তি হস্তান্তর আইনের ১৩০ ধারার বিধান মতে, লিখিত দলিল কর্তৃক নালিশযোগ্য দাবি হস্তান্তর করতে হবে। শুধু মৌখিকভাবে এই দাবি হস্তান্তর করা যায় না। এইভাবে উপরে উল্লেখিত সকল প্রকারের হস্তান্তরের ক্ষেত্রে শুধু মাত্র মৌখিকভাবে হস্তান্তর করা যায় না, সাথে নিবন্ধিত করতে হয়।

সংরক্ষিত সম্পত্তি হস্তান্তর আইন বিক্রয়, বন্ধক, দান, বিনিময় ও ইজারা ধরনের কয়েক প্রকার হস্তান্তরের ক্ষেত্রে সুনির্দিষ্টভাবে ব্যবহূত হয়। একশত বা তদূর্ধ্ব টাকার স্থাবর সম্পত্তির বিক্রয় অবশ্যই নিবন্ধীকরণ দলিলে সম্পন্ন হতে হবে।

 

 

 

Please follow and like us:

Leave a Reply

Your email address will not be published.